সফল মানুষদের সকালের ৬টি অভ্যাস সম্পর্কে জেনে নিন Best in 2022

সফল মানুষদের সকালের ৬টি অভ্যাস সম্পর্কে জেনে নিন

যে মানুষের কোনো কিছু করা ক্ষমতা থাকে না সেই মানুষটাই কিনা জীবনে সফল হয়ে উঠেছেন। সফল হতে হলে কিছু গুরুত্ব পূর্ণ টিপস মানা দরকার। যা সবসময় জিনিয়াস ব্যক্তিরা করে থাকে। 

আজকে আমি সকালে ৬টি এমন অভ্যাস সম্পর্কে জানো যা আপনাকে জীবনে সফল করতে সাহায্য করবে। এই ৬টি হ্যাবিট সম্পর্কে আপনি যদি সঠিকভাবে মানতে পারেন তাহলে দুই তিন মাসের ভেতরে আপনি অনেক টাকা মালিক হয়ে যাবেন। দেরি না করে শুরু করা যাক সকালের ৬টি গুরুত্বপূর্ণ হ্যাবিট।

ম্যাডিটেশন 

১. ম্যাডিটেশন 

বেশিরভাগ মানুষ সকালে উঠে সারা দিনের কাজের পেশার নিতে থাকে। আবার কেউ ফেসবুক চেক আউট করে থাকে। কিন্তু সফল মানুষরা এসব করেন না। তারা সাধারণত সকালে উঠে সাইলেন্ট মুডে চলে যান অথবা ম্যাডিটেশন করেন। যেটা তাদের ব্রেইনকে ভালো রেখে দিনের ভালো শুরুটা দেয়। 

আর ব্রেইনকে ভালো কাজ করার জন্য রেডি করে দেই। প্রথমে সকলের মতো হতে ম্যাডিটেশন একটি ধর্মিয় কাজ। যার সাথে সফলতার কোনো সম্পর্ক নেই। কিন্তু পরবর্তীদে রিচার্জ করা পর এবং সফল মানুষদের জীবনী পরার পর বোঝা যায় ম্যাডিটেশন কতটা গুরুত্বপূর্ণ একজন মানুষকে সফল করার জন্য। ম্যাডিটেশনকে বলা হয়ে থাকে সফলতার চাবিকাঠি। তাই আপনি যদি সফল হতে চান তাহলে সকালে উঠে ম্যাডিটেশন করুন। 

২. নিজের সাথে কথা বলা 

নিজের সাথে কথা বলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। এটা সাধারণত সফল ব্যক্তিরা সবসময় করে থাকেন। এই কাজটা আপনি আপনার জীবনে সফল হওয়ার জন্য সকালে উঠে করতে পারেন। নিজের সাথে কথা বলার জন্য আপনি এই তিনটি কথা সব সময় মাথায় রাখবেন। 

(ক) নিজেকে কেমন ভাবে দেখতে চান?

(খ) এই পরিবর্তন গুলো কেন চান?

(গ) ওই সব কাজ গুলোর জন্য কিকি করতে পারবেন?

এসব কথাগুলো একটি খাতায় লিখুন এবং প্রতিদিন সকালে উঠে মনে মনে নিজের সাথে বলতে থাকুন। 

৩. কল্পনা করুন

নিজের সাথে কথা বলা এবং কল্পনা করা প্রায় একই রকম। বলা হয়ে থাকে নিজের সাথে কথা বলা যদি ভিডিও হয় তাহলে তার অডিও হলো কল্পনা করা। 

যেমন আপনি গান শুনছেন না কিন্তু কল্পনা করুন যে আপনি গান শুনছেন এবং সকালে উঠে আপনি এমন অনেক কল্পনা করতে পারেন। যা আপনাকে সফল হতে সাহায্য করবে এবং বেশির ভাগ সফল মানুষেরাই এই কাজটি করে থাকে সাকাল বেলায়। 

ব্যায়াম 

৪. ব্যায়াম 

আমরা সবাই জানি ব্যায়াম হলো খুবই উপকারী। কিন্তু আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষই এটাকে এড়িয়ে চলি। ব্যায়াম না করার অনেক কারণ আছে। তার মধ্যে কমন হলো আজও দেরি হয়ে গেলো। আটটা বেজে গেলো এখন ব্যায়াম করে কি হবে। 

এই বাহানা থেকে বের হওয়া জন্য আপনাকে সকালে ঘুম থেকে উঠতে হবে। কিছু দিন কষ্ট করে সকাল সকাল উঠতে পারলেই এটি অভ্যাসে পরিণত হবে। সকালে ব্যায়াম করার অনেক বেনিফিট রয়েছে। ব্যায়াম করার ফলে আপনার ব্রেইনে বেশি পরিমাণ অক্সিজেন যায়। আপনার চিন্তা ভাবনা ক্লিয়ার হয়। আপনার এনারজি লেভেল বেড়ে যায় সারা দিনের জন্য। ব্যায়াম করার জন্য জিমে জাওয়ার প্রয়োজন হয় না বাড়িতে বসেই ব্যায়াম করা যায়। 

৫. বই পড়ুন

প্রতিদিন সকালে ১০ পৃষ্টা বই পড়ার চেষ্টা করুন। এই হিসেবে আপনি এক বছরে ৩৬১০ পৃষ্টা বই পড়তে পারবেন। যেটা প্রাই ১৭ – ১৮টি বইয়ের সমান। একটি ছোট কমিটমেন্ট আপনার জীবনে বড় পরিবর্তণ আনতে পারে। তাই সকালে উঠে প্রতিনিয়ত ১০ পৃষ্ট করে বই পরুন। বই বড়লে আপনার জ্ঞান দিনে দিনে বাড়তে থাকবে। ফলে আপনি সফল হতে পারবেন খুব সহজেই। 

৬. লেখালেখি করুন

প্রতিদিন সকালে আপনি কিছু সময় ব্যায় করুন আপনার হ্যাবিট লিখতে। এর থেকে আপনি সব সময় নতুন কিছু শিখবেন। আপনি লেখার সময় দুটি জিনিস ফলো করতে পারেন সবসময়। 

(ক) কি কি শিখেছেন এবং কি কি পেয়েছেন

(খ) আর কি কি নতুন শিখতে হবে এবং কি নতুন করতে হবে

এই দুইটি নিময় মেনে আপনি সকালে উঠে লেখালেখি করতে পারেন। এই দুটি জিনিসই আপনার জীবনকে বদলে দিতে পারে। 

কিছু পরামর্শ

উপরের এই কয়েকটি বিষয় সঠিক ভাবে মানতে হলে আপনাকে খুব সকালে ঘুম থেকে উঠতে হবে। সব রুটিন সকাল আটটার মধ্যে শেষ করতে হবে। আশা করি আপনি এই প্রতিবেদন থেকে অনেক উপকৃত হবেন।ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.