Facebook বা ফেসবুক থেকে আয় করার নিয়মাবলী জেনে রাখুন

Facebook বা ফেসবুক থেকে আয় করার নিয়মাবলী জেনে রাখুন

অনলাইন থেকে ইনকাম যেন সবার একটি অন্যরকম আকাক্ষায় পরিণত হয়েছে। প্রতিনিয়ত এই সেক্টরে মানুষের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে সেই সাথে নতুন নতুন কাজের সুযোগ ও তৈরি হয়ে যাচ্ছে। অনলাইনে সব থেকে সহজ ইনকামের পথ হচ্ছে ফেইসবুক থেকে আয়।

একটি সময় মানুষ শুধু যোগাযোগের জন্য এই সামাজিক যোগাযোগ সাইট ফেইসবুক ব্যবহার করতো। কিন্তু পৃথিবীর সব কিছুর সাথে পাল্লা দিয়ে আজ ফেইসবুক ও তাদের বিভিন্ন ধরণের ফিচার এড করেছে। যার মাধ্যমে একজন ফেজবুক ব্যবহারকারী খুব সহজে বিভিন্ন ভাবে ফেইসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারে।

ফেজবুক থেকে আয় করার নিয়মাবলী খুব সহজ ভাবে আপনাদের মাঝে তুলে ধরবো। আশা করতেই পারি যদি আপনারা ধৈর্য্য সহকারে পুরো আর্টিকেল টি পড়েন। তাহলে আপনিও ফেজবুক থেকে আয় করার বিষয় গুলো জেনে ইনকাম ও করতে পারবেন।

বর্তমানে পুরো বিশ্বে প্রায় ১৮০ কোটি মানুষ ফেইসবুক ব্যবহার করে এবং আমাদের বাংলাদেশে প্রায় ২কোটি ৪০ লক্ষের ও বেশি মানুষ এই সোস্যাল যোগাযোগ মাধ্যমটি ব্যবহার করছে। যেখানে এত বেশি মানুষের পরিমান লক্ষ্য করা যায় সেখানে বিজনেস সিস্টেম তৈরি হবে না তা বলাও ভুল।

বিজনেস সিস্টেম চালু হওয়ার সাথে সাথে ফেজবুক ব্যবহারকারীদের ও ইনকামের সুযোগ তৈরি হয়ে গেছে। কি কি উপায়ে ফেজবুক থেকে আয় করা যায় তা আপনাদের বিস্তারিত তুলে ধরবো এই আর্টিকেলে। ফেইসবুক থেকে আয় করার নিয়মাবলী কয়েকটি ধাপে খুব সহজে আপনাদের কাছে শেয়ার করবো।

ফেজবুক পেজ থেকে আয়:

ফেজবুক পেজ থেকে ইনকাম করা তুলনা মূলক সহজ অন্য বিষয়াদি থেকে। ফেজবুক পেজ থেকে আয় করার জন্য প্রফেশানল ফেজবুক পেজ তৈরি করতে হবে। কারণ প্রফেশনাল ফেজবুক পেজ ব্যান্ড ভ্যালু বাড়ায় এবং ইউজার এনগেজ ও হয় বেশি।

প্রফেশনাল ভাবে পেজ ক্রিয়েট করলে মানুষের কাছে বিশ্বাস্ততা পাওয়া যায় যা আপনার যে কোন কাজের জন্য অনেক উপকার হয়। প্রফেশনাল ফেজবুক পেজ তৈরি করতে কি কি লাগে?

(ক) নিস/টপিক( যে বিষয় নিয়ে পেজ বানাবেন) নির্বাচন।

(খ) ব্যান্ড নেম সিলেকশন ও নামের সাথে মিল রেখে লগো ও কভার ফটো তৈরি।

(গ) পেজের জন্য ইমেল তৈরি করা।

(ঘ) ওয়েবসাইট থাকলে তার লিঙ্ক এড করা।

(ঙ) ইউনিক কন্টেন্ট প্রোভাইড করা।

(চ) পেজের প্রফেশনাল লুক দেয়া।

উপরোক্ত বিষয় গুলো মেনে ফেজবুক পেজ তৈরি করলে আপনি খুব সহজে প্রফেশনাল পেজ বানিয়ে ফেলতে পারবেন খুব সহজে। কিভাবে পেজ থেকে ইনকাম করবেন?

প্রথমে আপনাদের জানিয়ে রাখি যে আপনি আপনার ফেইসবুক আইডি দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন না। কারণ এই রকম সুযোগ ফেজবুক দিয়ে রাখে নি তবে চাইলে আপনি আইডি দিয়ে পেজের এনগেজ বাড়াতে পারবেন।

ফেজবুক পেজ বিক্রি করে আয়। ফেজবুক In-stream-ad থেকে ভিডিও আপলোড করে ইনকাম। In-stream-ad কি?

ফেজবুক পেজ ভাড়া দিয়ে আয়।

আপনার যদি ভালো মানের ফেজবুক পেজ থাকে এবং লাইক বেশি তাহলে আপনি তা ভাড়া দিয়েও ইনকাম করতে পারবেন। প্রশ্ন জাগবে যে কে বা কারা এই ফেজবুক পেজ ভাড়া নিবেন? বর্তমানে নিউজ ওয়েবসাইটের বেশিরভাগ ভিজিটর এই ফেজবুক থেকে আসে।

তাই যাদের নিউজ সাইট আছে তাদের কাছে আপনার পেজ ভাড়া দিয়ে বা খবর প্রচার করিয়ে ‍দিয়ে খুব সহজে ইনকাম করতে পারবেন। কত জন লোকের কাছে রিচ হবে তার ওপর নির্ভর করে আপনি টাকার পরিমান বলতে পারেন।

ফেজবুক পেজ বিক্রি করে আয়।

আপনি চাইলে আপনার ফেজবুক পেজ বিক্রি করে আয় করতে পারবেন অনায়াসে। এখন অনেক মানুষ আছেন যারা শুধুমাত্র এই কাজই করছে। ফেজবুক পেজের দাম নির্ধারণ হয়ে থাকে আপনার ফেজবুক পেজের ফলোয়ারের ওপর। ফেজবুক ফলোয়ার কম থাকলে তা কেউ কিনতে চাইবে না।

প্রফেশনাল ফেজবুক পেজ তৈরি করলে এবং বেশি ফলোয়ার থাকলে আপনি ভালো পরিমান টাকা শুধুমাত্র ফেজবুক পেজ বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।

ফেজবুক In-stream-ad থেকে ভিডিও আপলোড করে ইনকাম।

ইউটিউবের মত ফেজবুকেও ভিডিও দেখার সময় আমাদের সামনে ইতিমধ্যে এড বা বিঙ্গাপনের দেখা মিলেছে। আপনি  আপনার পেজে in-stream-ad থেকে ভিডিও আপলোড করে ইনকাম করতে পারবেন। ফেজবুক পেজে শুধুমাত্র ভিডিও থাকলে এই এড দেখানো যায়। মূলত in-stream-ad  ফেজবুক পেজের ভিডিও তে শো করানো যায় এবং এড দেখানোর ফলে ইনকাম করা যায়।

Facebook বা ফেসবুক থেকে আয় করার নিয়মাবলী

In-stream-ad কি?

ফেজবুকে এটি একটি নতুন ফিচার যার মাধ্যমে আপনি আপনার পেজের ভিডিও তে এড বা বিঙ্গাপন শো করিয়ে ইউটিউবের মত ইনকাম করতে পারবেন। শুধুমাত্র এই এড ফেজবুক পেজেই ব্যবহার করা যায়। এই এড শো করিয়ে ক্লিকের মাধ্যমে আয় হয়।

ফেজবুক In-stream-ad পাওয়ার জন্য পেজের যোগ্যতা?

এই in-stream-ad  পেজে শো করানো জন্য আপনার ফেজবুক পেজের জন্য কিছু রিকয়্যারমেন্ট লাগবে। রিকয়্যারমেন্ট পূর্ণ করতে পারলেই শুধুমাত্র আপনি এড দেখানোর জন্য এপ্রুভাল পাবেন। রিকয়্যারমেন্ট গুলো হলো:

(ক) In-stream-ad  এর policy মেনে ভিডিও আপলোড করতে হবে।

(খ) পেজে মিনিমাম ১০,০০০ লাইক থাকতে হবে।

(গ) দুইমাসে ডিজিটর সংখ্যা ৬০,০০০ ফ্রিলাপ হতে হবে। প্রতি ভিডিও ভিউ ১ মিনিটের বেশি হতে হবে।

(ঘ) ভিডিও গুলো ৩ মিনিটের বেশি হতে হবে।

ফেজবুক Instant Article থেকে আয়।

বর্তমান সময়ে ওয়েবসাইট থেকে আয় এর অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে ফেজবুক Instant Article। এটি ফেজবুকের Publishign টুল। এটি ব্যবহার করার ফলে আপনার ওয়েবসাইটের গতি বাড়বে।

সেই সাথে এবং ওয়েবসাইটের ভিতর ফেজবুকের এড শো করিয়ে আয় করতে পারবেন। Instant Article  থেকে নিউজ পোর্টাল সাইটের ইনকাম সব থেকে বেশি হয় অনান্য সাইটের থেকে

Facebook বা ফেসবুক থেকে আয় করার নিয়মাবলী

Instant Artcile এর জন্য কিভাবে আবেদন করতে হবে?

আপনার সাইটে Instant Article এড করাতে চাইলে আপনার একটি ব্লগ প্রয়োজন পড়বে। ব্লগে মিনিমাম ২০ টি পোস্ট থাকতে হবে।সেই পোস্ট গুলোকে ফেজবুক পেজে শেয়ার করতে হবে। পেজে শেয়ার করার পর আপনাকে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের জন্য ফেজবুকের কাছে আবেদন করতে হবে।

আবেদনের সময় থেকে ৪/৭ দিনের ভিতর আপনার আবেদন টি রিভিউ যোগ্য হলে আপনাকে আপনি অনুমোদন পাবেন। অনুমোদন পেলে অতি সহজে আপনার পোস্টের ভিতর ফেজবুকই এড শো করাবে নতুন করে কোড বসাতে হবে না আপনাকে।

 

ফ্রিল্যান্সিং করে আয়।

আপনারা যারা ফ্রিল্যান্সিং করেন বা এই সেক্টরে এসেছেন তারা হয়তো জানেন যে ফেজবুকে ফ্রিল্যান্সিং এর বিভিন্ন গ্রুপ রয়েছে। সেই গ্রুপ গুলোতে এড হয়ে অথ্যাৎ আপনি যে সেক্টরে কাজ করেন সেই রকম গ্রুপে যুক্ত হয়ে কাজ করে দিয়ে আয় করতে পারবেন।

অন্য ফ্রিল্যান্সারদের কাজ ফেজবুকের মাধ্যমে করে দিয়ে আয় করতে পারবেন। আবার আপনি ভালো ফ্রিল্যান্সার হলে বিদেশিদের ও সরাসরি কাজের অফার পেয়ে যাবেন খুব সহজে। অনেকে আছে যারা সরাসরি ফেজবুক থেকে ক্লায়েন্ট পেয়ে থাকে।

ফেজবুক থেকে ফ্রিল্যান্সিং করে আয় করা যায়। মার্কেটপ্লেসের বাইরে এই রকম ভাবে অনেকে কাজ করিয়ে থাকেন। কিন্তু এই কাজের নিরাপত্তা কম তাই সাবধানতার সাথে কাজ করতে হবে আর টাকা আদান প্রদানের ক্ষেত্রে সজাক থাকতে হবে।

 

অ্যাফিলিয়েট করে আয়।

এখন ফেজবুকের মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট করে আয় করা খুব সহজ। শুধুমাত্র অ্যাফিলিয়েট সাইটে আপনার একাউন্ট তৈরি করে বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর লিঙ্ক গুলো ফেজবুকে শেয়ার করতে হবে। ফেজবুক থেকে আপনার লিঙ্কে ক্লিকের মাধ্যমে আপনি নিদিষ্ট পরিমান কমিশন পেয়ে যাবেন খুব সহজে। আপনি যেখান কে অ্যাফিলিয়েট করতে পারবেন: Amazon, E-Bay, Click-Funnel, সহ ইত্যাদি বড় বড় সাইটে।

বিদেশি কম্পানি ছাড়াও আমাদের বাংলাদেশে অনেক কোম্পানি আছে যারা তাদের অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক দিয়ে থাকে। আস্তে আস্তে প্রায় অনেক কম্পানি এই অ্যাফিলিয়েট সিস্টেম চালু করেছে। এবং তারা ভালো  পরিমান কমিশন দিয়েও থাকে। যেমন:  Daraz, BD Shop, E-Vally ইত্যাদি।

 

ফেজবুক গ্রুপ থেকে আয়।

প্রথমত আমিও ভাবতে পারি নি ফেজবুক গ্রুপ থেকেও ইনকাম করাও যায়। কিন্তু যখন দেখলাম যে আমার অনেক ফেন্ডরা এই ফেজবুক গ্রুপ থেকে ইনকাম করছে তারপর আমার বিশ্বাস হয়। এখন ফেজবুক গ্রুপ থেকে আয় করা যায় খুব সহজে।

ফেজবুক গ্রুপ থেকে আয় করার জন্য আপনার ফেজবুক গ্রুপের সদস্য সংখ্যা বেশি থাকতে হবে। গ্রুপ সদস্য সংখ্যা বেশি থাকার পাশাপাশি গ্রুপ এক্টিভ থাকতে হবে সব সময়। কারণ গ্রুপ একটিভ না থাকলে সদস্য সংখ্যা বেশি থাকলে কোন লাভ হবে না।

কিভাবে গ্রুপ থেকে আয় করতে পারবেন?

আপনি কয়েকটি উপায়ে ফেজবুক গ্রুপ থেকে আয় করতে পারবেন। আপনি আপনার নিজস্ব প্রোডাক্ট আপনার গ্রুপে শেয়ার করা মাধ্যমে ভালো ইনকাম করতে পারবেন। ফেজবুকে প্রোডাক্ট বিক্রয় বেশি করার জন্য আপনাকে অন্যদের থেকে দাম তুলনা মূলক কম রাখতে হবে এবং ভালো মানে প্রোডাক্ট দিতে হবে তাহলে আপনার বিক্রয় ও বেশি হবে।

আপনি চাইলে ফেজবুক পেজের মতন আপনার গ্রুপ ভাড়া দিয়েও ইনকাম করতে পারবেন। আপনি নিদিষ্ট সময়ের জন্য ভাড়া দিয়ে টাকা নিতে পারবেন। ফেজবুক গ্রুপ ভাড়া দিয়ে আয় করা অনেক সহজ। আপনার গ্রুপ ভালো মানের হলে অনেকে আপনার কাছে থেকে তা ভাড়া নিতে চাইবে।

গ্রুপ ভাড়া দেয়া ছাড়ও আপনি চাইলে সরাসরি গ্রুপ বিক্রি করে আয় করতে পারবেন খুব সহজে। আপনার গ্রুপের সদস্য সংখ্যা ও একটিভ হলে ভালো দাম পাবেন গ্রুপ বিক্রয় করে। গ্রুপের ওপর নির্ভর করে আপনি দাম পেয়ে থাকবেন। আশা করা যায় মাস শেষে ভালো পরিমান আয় করতে পারবেন।

ইতিকথা: কোন কাজই সহজ না। কিন্তু আপনি ধৈর্য্য সহকারে কাজ করে যেতে পারলে আপনি সফল হবেন। আর আপনি স্কিল ফুল পারসন হলে টাকা আপনার কাছে এমনিতে আসবে। তাই টাকার পিছনে না ছুটে স্কিল ডেভোলপমেন্টের পেছনে ছুটেন।

একটি সময় দেখবেন আপনি কাজ করে শেষ করতে পারবেন না। আশা করা যায় উপরোক্ত বিষয় গুলো ঠিক ভাবে করতে পারলে আপনিও খুব সহজে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন। ইনশা-আল্লাহ

Leave a Reply

Your email address will not be published.